৯ বছর পর স্থায়ী শহীদ মিনার পেলো বশেমুরবিপ্রবি


বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

বশেমুরবিপ্রবি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) দীর্ঘ ৯ বছর প্রতীক্ষার পরে শহীদ মিনার নির্মাণ করলো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এর আগে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে কাঠের একটি অস্থায়ী শহীদ মিনারেই জাতীয় শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাত বিশ্ববিদ্যালয়।

এদিকে এ বছরের ১১ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র আঘাতে অস্থায়ী কাঠের শহীদ মিনারটি ভেঙে লণ্ডভণ্ড হওয়ার পর ‘শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস’ এবং ‘বিজয় দিবস’ উপলক্ষে এক সপ্তাহে শহীদ মিনারটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

মূল ভারপ্রাপ্ত উপাচার্যের টেন্ডার প্রদানের ক্ষমতা না থাকায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে’ শহীদ মিনার’ জাতীয় চেতনার অংশ হওয়ায়ই স্বল্প সময়ে শহীদ মিনারটি নির্মাণ করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মোঃ শাহজাহান বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার প্লানে যে শহীদ মিনারটির নকশা রয়েছে সেটির নির্মাণ কাজ আরো পরে শুরু হবে। আপাতত শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের উদ্দেশ্যে স্বল্প সময়ে এই শহীদ মিনারটি নির্মাণ করা হয়েছে। ’

এদিকে দীর্ঘ ৯ বছর পরে বিশ্ববিদ্যালয়ে কংক্রিটের শহীদ মিনার নির্মাণ হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গগত, এর আগে বশেমুরবিপ্রবির সাবেক উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের দায়িত্বরত থাকা অবস্থায় শহীদ মিনারের নির্মাণ কাজ শুরু না করেই ২০১৫ সাল থেকে শহীদ মিনারকে নির্মাণাধীন দেখানো হয়েছিল এবং টেন্ডার প্রদানের পূর্বেই ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রায় ১কোটি ৬৩ লক্ষ টাকা ব্যয় দেখানো হয়েছিলো। তবে তখনও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি কাঠের তৈরি ছিল।