কুমারী পূজা কেন করা হয়?

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ অক্টোবর ২০২১, দুপুর ৩:৪২ সময়

শুরু হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান দুর্গাপূজা। গত সোমবার (১১ অক্টোবর) মহাষষ্ঠী্র মধ্যে দিয়ে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

আজ শারদীয় দুর্গোৎসবের মহাঅষ্টমী। মহাঅষ্টমী পূজার মূল আকর্ষণ কুমারী পূজা। তবে মহামারির কারণে এবারও হচ্ছে না কুমারী পূজা।

দেবী পুরাণে কুমারী পূজার সুস্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে।

কুমারী পূজা কেন করা হয়? এ প্রসঙ্গে শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংস দেব বলেছেন, সব স্ত্রী লোক ভগবতীর এক-একটি রূপ। শুদ্ধাত্মা কুমারীতে ভগবতীর বেশি প্রকাশ। কুমারী পূজার মাধ্যমে নারী জাতি হয়ে উঠবে পুত-পবিত্র ও মাতৃভাবাপন্ন। প্রত্যেকে শ্রদ্ধাশীল হবে নারী জাতির প্রতি।

১৯০১ সালে ভারতীয় দার্শনিক ও ধর্ম প্রচারক স্বামী বিবেকানন্দ সর্বপ্রথম কলকাতার বেলুড় মঠে নয় জন কুমারী নিয়ে পূজার মাধ্যমে এর পুনঃপ্রচলন করেন। তখন থেকে প্রতি বছর দুর্গাপূজার অষ্টমী তিথিতে এ পূজা হয়ে আসছে। পূজার আগ পর্যন্ত কুমারীর পরিচয় গোপন রাখা হয়। এছাড়াও নির্বাচিত কুমারী পরবর্তী সময়ে স্বাভাবিক জীবনযাপন আচার-অনুষ্ঠান করতে পারে।

Time Viewed

Posted: ১৩ অক্টোবর ২০২১, দুপুর ৩:৪২ সময়