ঋতিল মনীষা

একান্ত নির্জন

খোঁজে কি পাবে আর হারিয়ে ফেলা দুটি পঙক্তি

বহনে যদি দিনের পর দিন এতই অনাসক্তি,

স্মৃতিবিভ্রম?

এত বড় কচু পাতা কই আর,

আড়ালে যার দাড়িয়ে ঈশ্বর!

ওই যে সমাজ অতন্দ্র পাহারাদার

ইলেক্ট্রনিক বাল্বের যুগে লণ্ঠন হাতে।

ওই তো রাষ্ট্র,

পায়ে বেড়ি, শ্রী ঘরে দেখো প্রতিচিত্র শ্রী,

এই গ্রহের বাসিন্দা হয়েও এই পৃথিবী তোমার নয়।

ভোরের ডানা ঝাপটায় আলো

নিভৃতে ভালোবাসার নামে সবচেয়ে শোষণ

স্মৃতির কুয়াশা দূরে সরে সত্য জেনেছে বিস্ময়।

জলের পাশ ঘেঁষে একদা একসাথে

অথবা সত্তা অর্বাচীন

প্রকৃতিকে চিনতে গিয়ে কাব্যে পথ হারিয়ে ফেলা,

শেষের দু'টো লাইন অথবা প্রথম

অন্তিম যাত্রার সন্ধানে রক্তিম বিস্ফোরণ!

মৌমাছি ঝাঁকের ভেতরে না থাকে যদি মানুষের গুঞ্জর শব্দ সংহারে বোধদয় সমাধি সংশয়ে কি আসবে প্রজ্ঞা!

কয়েক মুহুর্তেই বদলে অরণ্য পাথর স্রবণে

মৃত প্রজাতির অস্থি অবসাদে নিরুদ্দেশ,

আজকে কি বিশ্বাসী পাখিটা দাড়াবে রাস্তার মোড়ে?

7 Time Viewed

Posted: ১৫ এপ্রিল ২০২২, দুপুর ৪:১৪ সময়